ডেভকথনঃ সাব্বির আহমেদ রেজন

ডেভকথন অ্যান্ড্রয়েড লাইম এর সফল অ্যান্ড্রয়েড ডেভেলপারদের ইন্টারভিউ নিয়ে আয়োজন। আজ কথা হবে সাব্বির আহমেদ রেজন ( Sabbir Ahmed Reyjohn ) এর সাথে।

 

Sabbir Ahmed Reyjohn

Sabbir Ahmed Reyjohn

 

কি করছেন এখন? ( কোথায় জবে আছেন বা নিজের কোম্পানী সম্পর্কে আমাদের বলুন )

নিজের কোম্পানিতে চেয়ারম্যান পদে আছি। একটি অ্যান্ড্রয়েড এবং আই ও এস অ্যাপ্লিকেশান ডেভেলপমেন্ট ভিত্তিক সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান নাম পাওয়ার জি পি বি ডি। নামের সাথে জি পি থাকলেও এটা আসলে গ্রুপ কে ইন্ডিকেট করে।

 

ছোটবেলা কোথায় কেটেছে? আপনার স্কুল , কলেজও ভার্সিটি নিয়ে আমাদের বলুন কিছু।

ছোটবেলা কেটেছে গাজীপুরে। স্কুল ছিল গাজীপুরের স্বনামধন্য রানিবিলাস মনি স্কুল। কলেজ ছিল রাজউক আর বিশ্ববিদ্যালয় ছিল আহসানুল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিসশবিদ্যালয়।

 

অ্যান্ড্রয়েড নিয়ে কবে থেকে কাজ শুরু করলেন? প্রথম অ্যাপ কি ছিলো?

কাজ শুরু করেছি ২০১২ এর শুরুর দিকে। আমাদের ক্লাউড নামের একটা কম্পানিতে গ্রামের কিছু বাচ্চাদের বিনামূল্যে ট্যাবলেট বিতরন করা হয়েছিল। সেখানে তাদের জন্য সম্পুর্ন বাংলায় একটা শিশু শুলভ আনন্দদায়ক বাংলা ক্যালকুলেটর বানিয়েছিলাম। সে সময় ছিল ফ্রয় ২.২ এর জুগ। বাংলা সাপোর্ট (তাও আবার চাইনিজ ট্যাবলেট) দেয়া টা ছিল একটা চ্যালেঞ্জ।

 

আপনার ডেভেলপ করা যে অ্যাপটা, একদম মনের মত। সেটা নিয়ে কিছু বলুন আমাদের।

বেশীরভাগ অ্যাপ আমি আমার টিম নিয়ে করে থাকি। দশে মিলে করি কাজ নীতিতে বিশ্বাসী কিন্তু এর মধ্যে যদি বলতেই হয় জিও এলার্ট অ্যাপ টা নিয়েই বলব। এতি একটি লোকেশন ভিত্তিক এলার্ম অ্যাপ্লিকেশান যেটা আপনাকে নির্দিষ্ট কোন জায়গায় পৌঁছানো মাত্রই আপনাকে মনে করিয়ে দিবে যে এই জায়গায় আপনার কোন কাজ টা করার কথা ছিল। এমন কি আপনি নিযে থেকে একটা নির্দিষ্ট দিন তারিখ এবং দূরত্ব সেট করে দিতে পারবেন যেখান থেকে আপনি এলার্ট পাওয়া শুরু করতে চান।

 

অ্যাপ ডেভেলপ করার প্ল্যান মাথায় আসলে কিভাবে ছক করেন? যারা নতুন ডেভেলপ করেছে এখানে তাদেরকেও দুই লাইনে গাইড করতে বললে কি বলবেন?

যেভাবেই ছক করিনা কেন, প্রথমেই মাথায় রাখি একলাইন কোড ও যেন দুই বার লিখতে না হয়। মানুষ ভেদে কোডিং স্টাইল আলাদা হতেই পারে কিন্তু যে সবচেয়ে কম কোডে বেশি কাজ করতে পারে তার কোড ই সেরা। আমি সেটা ফলো করার চেষ্টা করি। নতুনদের কে এটাই বলব সব কিছুকে একটা নিজের নিয়মে একটা ছক করে এমন ভাবে কাজ টা শুরু করতে যেন কিছুদিন পর সেতাই আবার তাকে করতে না হয়।

 

অ্যাড্রেয়েড অ্যাপস ডেভেলপমেন্ট এর কোন সাইডগুলো নিয়ে কাজ করতে বেশি ভালোবাসেন? কিংবা আপনার ‘এরিয়া অব এক্সপার্টিজ’ কোনগুলো?

সবই ভালো লাগে, তবে গেম ডেভেলপমেন্টে আমার কিছু দুর্বলতা আছে এবং আমার তেমন ইচ্ছাও নেই। আর আমি পছন্দ করি একদম গুগল এর গাইডলাইন ফলো করে কাজ করতে, গুগল মামা জা বলে তাই ঠিক। 😀

 

কোন কোন টুল ব্যবহার করেন ডেভেলপের জন্য?

Android studio, নিজের ডিভাইস( ফোন )

 

ডেভেলপার হিসেবে কি কি রিসোর্স বা সাইট আপনার রেগুলার দেখতে হয় বা কাউকে দেখতে রেকমেন্ড করবেন?

1. Stack overflow
2. Android hive
3. Vogella
4. Slide nerd.

 

দিনের বা রাতের কোন সময়টাতে কাজ করতে বেশি পছন্দ করেন?

সারা রাত!

 

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস ডেভেলপমেন্ট ছাড়াও আরো কি কি কাজ করছেন?

ফটোগ্রাফি আমার এক কালের পেশা এবং আজীবন নেশ, আপাতত পেশাটা বাড দিলেও নেশাটা জায়নি,সেটাই করছি।

 

অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট নিয়ে ভবিষ্যত প্ল্যান সম্পর্কে আমাদের ছোট্ট করে বলুন।

বাংলাদেশের মানুষকে অ্যাপ এর প্রয়োজনীয়তা বুঝিয়ে তাদের জীবনকে আরো সহজ ও সুন্দর করতে অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারে আরো প্রলুব্ধ করে এমন অ্যাপ্লিকেশন আজীবন বানিয়ে যেতে চাই।

 

কাকে ( কাদের ) আপনার আইডল হিসেবে মনে করেন?

১/ ড. মুহাম্মাদ জাফল ইকবাল
২/ হানিফ সংকেত
৩/ লিওনেল মেসি
৪/ এ আর রহমান

 

ডেভেলপার হিসেবে কোন সমস্যাগুলোর বেশি সম্মুক্ষীন হতে হয়?

অনেক ভালো আইডিয়া নিয়ে কাজ করার ইচ্ছে থাকে কিন্তু সেই অ্যাপ বানাতে যে সময়টা লেগে যায় ঐ সময়ে ব্যাকআপ ইনকাম সোর্স এর অভাব থাকায় আর পারা যায়না।

 

যারা প্রোগ্রামিং ও ডেভেলপমেন্টে আসতে চায় বা চলে এসেছে তাদের জন্য কি পরামর্শ দিবেন?

Never give up!

 

যদি বলি একটা মন্ত্র বলে দিন, যা দিয়ে যে আপনার সম্পর্কে পড়ছে তার জীবন বদলে যাবে, তাহলে কি মন্ত্র বলবেন?

জীবন একটা মই এর মতো, এবং কেও পকেটে হাত দিয়ে মই এর চূড়ায় উঠতে পারে না।
শর্টকাট খুজসো তো ধরে নাও তোমার জীবন সেখানেই শেষ, তুমি মরে গেছ।

 

যুক্ত থাকুন সাব্বির আহমেদ রেজন এর সাথেঃ

 
আরো পড়ুনঃ ক্যারিয়ার হিসেবে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট
 

Mosharrof Rubel

আমাকে ফেসবুকে পাবেন এখানেঃ মোশাররফ রুবেল

You may also like...

Leave a Reply