লোকাল কাজ থেকে ১ লক্ষ্য মাইল দূরে থাকবেন যে কারনে!

দেশে লোকাল ক্লায়েন্ট এর লোকাল কাজ নয় কেন? কেন কাজ করা বিরাট ঝামেলার এক জিনিস? আমার অভিজ্ঞতা থেকে কিছু মজার ফ্যাক্টস তুলে আনলাম। আসুন দেখা যাকঃ

 

Bad client picture

Bad client picture

 


১/ কাজ পেতে হলে আপনাকে ক্লায়েন্টের কাছে যেতে হবে এবং সে ২ থেকে ৫ বার মিটিং করবে। এই দুই থেকে পাঁচ বার যেয়ে যেয়ে আপনার জীবন যৌবন সব ফানা ফানা হয়ে যাবে। জ্যামে ঘামে গরমে আপনি ক্লান্ত অবশ্রান্ত হয়ে যেতে পারেন 😛

 

২/ মজার ব্যপার হল, আপনাকে কাজ দিয়ে এরপর সে কাজে আগ্রহ হারালেও অবাক হওয়ার কিছু নেই। আমরা এমন এক প্রজেক্টে কাজ করেছি। কাজ শেষ করার পর ফোনও ধরেনা, মেইলও রিপ্লে দেয়না, কাজও নেয়নি। আমাদের এক সপ্তাহ নষ্ট!!

 

৩/ ক্লায়েন্ট আপনাকে ১০,০০০টাকা দেওয়া মানে আপনার জীবন কিনে নিয়েছে। এরপর দিন রাত সব সময় আপনাকে জালাতে শুরু করবে!

 

৪/ কাজ নেওয়ার পর এক একবার এক একটা চেঞ্জ করতে হবে। এটা অবশ্যই আনলিমিটেড টাইমস! আপনাকে করতেই হবে, নাইলে খবর আছে।

 

৫/ কাজ সে যা বলে দিবে তা করতেই হবে, এরপর আরো নতুন নতুন আবদার আসবে। ধরেন, সে রাতে ঘুমায়ে কিছু একটা স্বপ্নে দেখলো পরের দিন আপনাকে ফোন দিয়ে সেটা করতে বলবে। আবার ধরেন, সে নতুন কিছু দেখলো, আপনাকে সেটা করতে হবে, ক্লায়েন্ট বলে কথা!

 

৬/ ১০,০০০ টাকা পে করে হোয়াটসঅ্যাপ, ভাইবার টাইপ কিছু বানিয়ে নিতে চাইবে, তাও পুরা টাকা পাবেন কিনা সন্দেহ আছে।

 

৭/  কাজ শেষে আপনার সাথে সম্পর্ক নষ্ট হওয়ার চান্স ৯৯% !

 

৮/ আপনি যার কাজ করছেন সে যদি আরো কারো ক্লায়েন্ট হয় মানে সে মধ্যপন্থি হিসেবে কাজ করে আপনি শেষ। মুল ক্লায়েন্ট যা পে করবে আপনি তার থেকে অনেক কম পাবেন সেটা সমস্যা না। সমস্যা হল, মুল ক্লায়েন্ট পে করবে অনেক চাইবে অনেক। আপনি পেমেন্ট পাবেন কিন্তু চাহিদা ঐ মুল ক্লায়েন্টেরটাই! বাংলাদেশে এইটাই বেশি হয়, তাই পেমেন্ট কমে যায়, কাজের মানও খারাপ হয়!

 

৯/ যত বড় কাজ হোক, আপনি ৩০ হাজার টাকার উপরে চাইলে ক্লায়েন্ট এমন ভাব করবে মনে হবে আপনি তার দাদার লুঙ্গি ধরে টান দিসেন!

 

১০/ রাত বিরাত, ঘর বাড়ি , স্থান, কাল পাত্র কোন কিছুই ক্লায়েন্টের জন্য সমস্যা না। সে আপনাকে কাজের তাগাদা দিতেই থাকবে। আপনি পেমেন্টের তাগাদা দিলে অজুহাত আসতে থাকবে!

 

১১/ ক্লায়েন্টের ধারনা আপনি সুপারম্যান! একাধারে গ্রাফিক্স ডিজাইনার, সার্ভার প্রোগ্রামার, অ্যাপ এর প্রোগ্রামার, এ ছাড়াও যাবতীয় সব কিছু করার ক্ষমতা রাখতে হবে আপনাকে 😉

 

১২/ এত সব ঝামেলায় আপনার ঘুম হারাম হবে, মেজাজ খিটখিটে হবে, ক্ষুদা মন্দা হবে এমনিকি আপনার আয়ু কমে টপাক করে মরে যেতে পারেন!

 

হাহা… সত্যি কথা বলতে কি এখানকার প্রায় সবগুলা অভিজ্ঞতা আমার হয়েছে! লোকাল ক্লায়েন্ট থেকে তাই ১ লক্ষ্য মাইল দূরে থাকুন বাঁচতে চাইলে। হিউমার ক্যাটেগরির আরো লেখা পড়ুন এখান থেকে।

 

লেখাগুলো যেহেতু ফেসবুকে শেয়ার করি, আরো লেখা ভবিষ্যতে পেতে আমার সাথে যুক্ত থাকতে পারেন এখানে।

Mosharrof Rubel

আমাকে ফেসবুকে পাবেন এখানেঃ মোশাররফ রুবেল

You may also like...

Leave a Reply