কিভাবে কাজ করবেন? কিভাবে শিখবেন? কই শিখবেন?

” কিভাবে কাজ করবেন? ” আমরা যখন শেখা শুরু করি তখনকার মোস্ট ওয়ান্টেড ব্যপার হল কি শিখবো? কিভাবে শিখবো? কই শিখবো?

প্রথমে বলি শেখার রিসোর্সের অভাব নাই। চাইলেই সব পাওয়া যায়। এনিথিং! শুধু একটু কষ্ট করে হাত বাড়াতে হবে। এবং সেটা সঠিক জায়গায়।

 

where to work

কিভাবে কাজ করবেন?

 

ভার্সিটিতে যারা পড়ি বা ভার্সিটি শেষ তাদের এই চিন্তা সর্বদা থাকে কি করা যায়। কি শিখলে উত্তম। বলে নেই, শুধু টাকার বা আয় করার জন্য শিখতে চাইলে এই লেখা আর না পড়াই আপনার জন্য উত্তম। হ্যাঁ, অবশ্যই আমরা আয় করবো তবে সেটা ভালো করে শেখার পর। আবার শুধু জানলেই হয়না, জানাটা কিভাবে কাজে লাগাতে হবে সেটাও জানতে হবে, বুঝতে হবে, না বুঝলে বুঝার চেষ্টা করতে হবে।

শেখার পার্টটা দুই ভাগে ভাগ করা যায়। প্রথমটা হচ্ছে ব্যসিক শেখা অর্থাত জিনিসটা কি তা শেখা। দ্বিতীয়টা হচ্ছে সেটা ব্যবহার করে আমি কি করতে পারবো! বলা বাহুল্য প্রথমটা অনেকেই আয়ত্ব করে, পরেরটায় ঝরে যায়। প্রথমটা বলার জন্য অনেকেই আছে, পরেরটা নিয়ে কি করা যায় সেটা আমি বলার চেষ্টা করবো।

আপনি যাই শিখেন না কেন সেটা নিয়ে করার করার চিন্তা করতে পারেন। সেই জায়গায় আপনি চাইলে ভালো করতে পারবেন। এটা আমি বিশ্বাস করি। অনেকেই দেখেছি। হতাশা আসবে, জয় করতে হবে। আপনি ওয়েব, এসইও, আইওএস, অ্যান্ড্রয়েড, ডিজাইন যেখানেই কাজ করেন সেখানেই কাজ আছে, স্কোপ আছে।

ধরেন, আপনি পিএইচপি, এইচটিএমএল, সিএসএস, জাভা স্ক্রিপ্ট, সামান্য ফটোশপিং পারেন। এই পারা মানে আমি ব্যসিকের কথা বলছি। তারপর কি করা যায়? এভাবে বলার কারন আমি ভার্সিটিতে ভর্তি হওয়ার এক বছরের মাথায় খেয়াল করলাম এগুলা কম বেশি পারি। এখন কি করবো?

আসলে এরপর যা করলাম তাতে কাজের কিছু হয়নি তবে আমার শেখাটা তখনই বেশি হয়েছে। তারপর আমি প্রজেক্ট বেইজড কাজ শুরু করি। নিজের জন্য নিজেই ছোট খাট প্রজেক্ট করতাম। যেমন, লগিন সিস্টেম, রেজিস্ট্রেশান, সার্চিং, চ্যাটিং, স্ট্যাটাস আপডেট করা, ইউজার ম্যানেজমেন্ট, এমপ্লয়ি ম্যানেজমেন্ট, ডাটাবেজ নিয়ে কাজ করা, থিম করা হাবি জাবি ইত্যাদি ইত্যাদি। ফাইনালি যেটা করলাম একটা সিএমএস বানালাম।

এগুলা করে আসলে পকেটে কিছু আসেনা, তবে যা হয় সেটার নাম শেখা। এভাবে শিখলে মাথায় ঘেথে যায় ব্যপারগুলা। আমার পরিচিত এক ভাই আছে যিনি আড়াই বছর ধরে অ্যান্ড্রয়েড ডেভেলপার এবং ফার্স্ট ক্লাস ডেভেলপার। উনি যখন জবে ঢুকেন তেমন কিছু জানতেন না। যখন প্রজেক্ট দেয়া হয় এক এর পর এক, তখনি বিপদে পড়েন, ঝামেলায় পড়েন এবং খুব ভালোভাবে শিখেছিলেন।

আসলে, বই দেখে আপনি গ্রামার শিখতে পারবেন তবে আসল শেখা হয় কথা বলতে গেলে। খেয়াল করেন, ছোট বেলায় আমরা শুনে বলতে বলতে কথা বলা শিখেছি। আগেই আমাদের হাতে গ্রামার বই তুলে দেয়া হয়নি। একবার ভাবুন, জন্মের ৩ ঘন্টা পর আমাদের আম্মা হাতে চৌধুরি এন্ড হোসাইনের বই দিয়ে বলছেন, ” নে বাবা ইংরেজী শিখ, তোকে ইংরেজীতে ইংরেজদের সাথে কথা বলতে হবে” 😛 :v :3

প্রচুর পাওয়ারফুল রিসোর্স আছে অনলাইনে সব কিছু নিয়েই। এখন কথা হচ্ছে কি শিখবেন? এই প্রশ্নে আমার উত্তর হচ্ছে আগে কয়েকটা করে দেখেন, যেটা ভালো লাগে, ভালোবাসেন সেটা করেন। সেখানেই ক্যারিয়ার করেন। কাজকে ভালো না বাসলে হয়ত টাকা আসবে কিন্তু মানষিক শান্তি পাওয়া যাবেনা। তাই ভালো বাসা থেকেই করেন। “Do what you love, Love what you do”

ভালো থাকবেন, বর্ষাকালে ছাতা নিয়ে বের হবেন।

শিখতে কত সময় লাগবে? ওয়েল! এই প্রশ্নের উত্তর এখানে দেয়া আছে।।

Mosharrof Rubel

আমাকে ফেসবুকে পাবেন এখানেঃ মোশাররফ রুবেল

You may also like...

Leave a Reply